সিনিয়র আপু যখন ক্রাস (পর্ব ৭):
  • Aporichito
  • Category: Romantic
  • 4 months ago



  • আপুঃতুর ভালোবাসা আমার প্রয়োজন নাই।তোরা শুধু মেয়েদের দেহকে পছন্দ করিছস।

    আমি:ছি আপু ছি,তুমি আমাকে এটা ছিনলে।তুমি ছাইচ না যখন,আমি তোমার সামনে আসবো না।কিন্তু তুমি আমার সামনে কোন দিন ভালোবাসার অধিকার নিয়ে আসবে না🙄🙄

    আপু:হা হা হা 😃😃😃

    আমি:আপু হাসতেছ কেনো🤔

    আপু:তুর কথা শুনে,তুই কী ভাবে ভাবলি।আমি তুর কাছে ভালোবাসার অধিকার খুজবো হা হা হা😃😃😃।তুই আমার সম্পরকে জানিস না,সে জন্য এটা বলতেছিস।আমার সামনের শুকু বারে বিয়ে,তুর সাথে এটা কেনো করছি জানিস।আমি একজন কে ভালোবাসি,সে দিন তুই আমাকে কিস করছিলি, সেটা ও দেখে যায়।তার পর থেকে ও আমার সাথে কথা বলে নাই।তাই তোর সাথে এটা করেছি।তাকে যখন তুর ভিডিও টা দেখায়,সেও বিশ্বাস করে পেলে।😀😀

    আমি:হা হা হা হা হা 😃😃😃😃😃😃তুমি

    জায়রিন আপু:তুই হাসতেছিস কেনো? পাগল টাগল হয়ে গেলি নাকী🤔🤔🤔🤔

    আমি:আপু আমি ঠিক আছি।হয় তো তুমি ঠিক থাকবে না।হা হা হা 😀😀😀

    আপু:কেনো

    আমি:এই ভিডিও টা দেখ

    আপু:দেখি।এটা কী ভাবে করলি😠😠(রাগি ভাবে)

    আমি:হা হা হা😀

    আপু:এটা কী ভাবে করলি।

    আমি:তুমি যে ভাবে করেছ😀

    আপু:প্লিজ এটা কাউ কে দেখাস না। তুই যা চাইবি আমি তা দেবো,এটা দেখলে আমার বিয়ে বেঙ্গে যাবে প্লিজ😥🙏😥🙏(কান্না করে)

    আমি:তোমার মত না।এই ভিডিও সবাই কে দেখাবো, তুমি বিয়ে করো সমস্যা নাই।কিন্তু আমি তুমাকে ক্ষমা করবো না।এই নাও ভিডিও ডিলেট করো।তার পর জায়রিন আপু মোবাইলটা নিয়ে ভিডিও টা ডিলেট করে।মোবাইল টা আমাকে দিয়ে দিলো।তার পর আমি ক্লাসে চলে যায়।ক্লাস করে আব্বুর অফিসে চলে যায়।রাত ৯টায় বাসায় এসে,খাবার খেয়ে রোমে চলে আসি।তার পর ভাবতে থাকি আপুর কথা,তার সাথে কাটানো সময় গুলি খুব মনে পরতেছে।

    আপু তুমি আমাকে একটা শিক্ষা দিয়েছ,তা হলো।কাউ কে চোখ বন্ধ করে বিশ্বাস করিও না,কারণ সবাই সেই বিশ্বাসের মৃল্য দিতে জানে না।তুমার থেকে তো আমি ক্ষমা ছাইচি,আমি ভুল করেছি তার জন্য। তার পরও কেনো এত কষ্ট দিছ আমাকে।তুমি কেনো আমাকে মিথ্য আসা দেখাইচ,যেটা কখনো পুরণ হবে না।তোমার নাকি সামনে বিয়ে,আর ভাববো না তুমাকে নিয়ে।এই চোখের পানি কেনো বান্ধা মানছে না,তোমাকে ভুলতে ছাইলে পারি না।ভুলে যাবো আজ থেকে তোমাকে।

    এগুলি ভাবতে ভাবতে ঘুমিয়ে যায়।সকালে তানিয়ার ডাকে ঘুম বাঙ্গে।তার পর আমি ফ্রেশ হয়ে,নাস্তা করে কলেজে চলে যায়।কলেজের এক পাশে গিয়ে আমি বসে তাকি,তখন কত গুরি মেয়ে এসে আমার পাশে বসলো।এমন ভাবে বসেছে,সবাই আমাকে গিরে রেকেছে।আমি যখন উটতে যাবো

    তখন একটা মেয়ে:ঐ শালা উটিস কেনো,বসে থাক😠😠😠

    আমি:আপু আমি ক্লাস করবো(করোন সুরে)

    আর একটা মেয়ে:এটা এই ছেলেটা না🤔🤔

    অন্য আর একটা মেয়ে:কোন ছেলে।

    মেয়েটি:দারা আমি শান্তাকে ডাকতেছি🙄

    আমি:নামটা শুনার সাথে আমার মাথা গুরে গেলো।আমি তাড়া তাড়ি পালাতে যাবো তখন আমাকে সবাই ধরে রাকছে,

    একটি মেয়ে:শালা কোথায় পালাবি,তুকে একটু আদর করতে হবে না।তুকে অনেক দিন থেকে খুজতেছি।

    আপনাদের বলা হয়নি শান্তা কে।শান্তা হলো আমাদের সিনিয়ার আপু, মানে জায়রিন আপুদের সাথে পরে।অনেক দিন শান্তা আপুর থেকে পালিয়ে ছিলাম।কারণ আপুর বাসা হচ্ছে আমাদের পাশের বাসাতে থাকে।তারা যখন নতুন এসেছিলো,তখন আমি তাকে দেখতে গিয়েছিলাম।সাকিব থেকে শুনে ছিলাম,মেয়েটি নাকি অনেক সুন্দর।সাকিব হচ্ছে আমার বন্ধু,একি ক্লাসে। কিন্তু অন্য কলেজে পরে।তার পর দুই জনে মিলে গিয়ে দেখি,সত্যি মেয়েটি অনেক সুন্দর😀😀😀

    শান্তা আপু:এই এদিকে আয়তো।আমি আর সাকিব দারিয়ে থাকছি,কারণ কাকে ডাকতেছে আমরা কেমন করে জানবো

    শান্তা আপু:এদিকে আয়

    আমি:আপু আমাদের বলছেন

    শান্তা আপু:তুরা ছাড়ন আর কেউ আছে😠😠(রাগ দেখিয়ে)।তার পর আমরা দুই জন আপুর কাছে গেলাম..….

    আপু: এই জিনিস গুলি ধর

    আমি:জিনিস গুলি নিয়ে দারিয়ে আছি

    আপু:দারিয়ে আছিস কেনো?বাসায় নিয়ে যা

    আমি:আচ্ছা।তার পর আমরা দুই জনে কাজের লুকের মতো সব গুলি দিয়ে আসলাম😞

    আমি:সাকিব তুই বলছিলি মেয়েটি শান্ত।আর এখানে পুরায় উলটা😬

    সাকিব:আমিও তাই ভাবতেছি

    আমি:সাকিব একটা জিনিস খেয়াল করছিস

    সাকিব:কী

    আমি:শান্তা আপু ঠোঁটে টা কিন্তি সেয়।একবার যদি ঐ ঠোঁটে কিস করতে পার তাম।তখন শান্তা আপু কোথায় থেকে চলে আচ্ছে।আমরা ভয়ে ভয়ে :আপুপুপু কখন আসলে😥😥

    আপু:এখন আসলাম,আর তুরা এত ভয় পাচ্ছিস কেনো🤔🤔🤔🤔

    আমরা: কই আপু

    শান্তা আপু:সাকিব তুই একটু বাইরে যা।কায়েম এর সাথে আমার একটু কথা আছে?

    তার পর সাকিব বের হয়ে গেলো,সাথে সাথে আপু দরজাটা বন্ধ❎ করে দিলো

    আমি:আপু দরজা বন্ধ❎ করেছেন কেনো?

    আপু:আমাকে কিস করার খুব শখ তাই না😁

    আমি:একটু করে দুষ্টুমি করছি যে,চরি😥

    আপু:আরে সমস্যা নাই।এটা বলে একটু একটু আমার দিখে এগিয়ে আসতেছে,এক সময় আমাকে দেওয়ালের সাথে লাগিয়ে পেলে,আপু নিশ্বাসটা আমাকে পাগল করে দিচ্ছে।আপু ঠোঁট টা আমার ঠোটের সাথে মিলিয়ে, কামর দিতে লাগলো।আমি ব্যাথায় চট পট করতে লাগলাম।আপু আমাকে এমন ভাবে দরেছে সরাতেও পারতেছি না।আমার আর না পেরে চোখের পানি ছেড়ে দিলাম,আপু আমার চোখের পানি দেখে,কি মনে করে ছেড়ে দিলো।আমি ঠোঁটে হাত দিয়ে দেখি রক্ত আসতেছে এবং খুব বেথ্যা করতেছে😥😥😥

    আপু:আর কোনো দিন আমার সাথে বিয়াদপি করবি না,করলে শাস্তি এর থেকে বেশি হবে😁😁😁😁😀

    আমি:মাথা নাড়িয়ে হ্যাঁ সূচক উওর দিলাম,তার পর আমি যখন বের হয়ে যাবো

    আপু:দারা কোথায় যাচ্ছিস😡

    আমি:বাসায় চলে যাবো।আর কোনো দিন আপনার সামনে আসবো না(কান্না কর)

    আপু:তুই কাল কে আমার সাথে দেখা করবি,যদি না করিস।তুকে কী করবো আমি নিজেও জানি না।এখন তুই এদিকে আয়(রাগি ভাবে)

    আমি:আসবো না

    আপু:তুই আসবি না,তুর গার আসবে।এটা বলে আমার কান দরে টেনে একটা সিয়ারে বসালো।একটা খাপর দিয়ে আমার রক্ত গুলি মুচে দিলো

    আপু:ছেলেটির উপর বেশি রাগ দেখিয়ে পেলছি,একটু বেশি কেটে গেছে(মনে মনে)

    আমি:একবার এখান থেকে যেতে পারি কিনা দেখ,আর কোনো দিন এখানে আসবো না।কী মেয়েরে বাব্বা🙁🙁

    আপুঃএত ভেবে লাভ নাই,কাল না আসলে দেখবি।আর যাওয়ার সময় দোখান থেকে ওসুধ নিয়ে নিবি🙄🙄🙄

    আমি:কামড় দিয়ে এখন ওসুধ নিতে বলছে(মনে মনে)

    আমি:আচ্ছা আপু।তার পর দুই জনে বের হয়ে গেলাম।

    আংকেল :তুমি এসেছ।এদের কিছু খেতে.....

    #চলবে……………………………………………….…

    #ভুল হলে ক্ষমা করবেন,অভিযোগ থাকলে inbox করোন।

    #ভালো লাগলে like comment করে যানাবেন।

    #nxt nice না দিয়ে।আপনাদের মনের অনুভুতি দেন।যাতে আমি সামনে এগিয়ে যেতে পারি


  • Comment: 0
  • View: 152
  • Share
  • Comments

    Be the first comment
    Please Login or Sing up now to comment.

  • ©Get This Website Theme Free!

  • Just Type a Password...